আপ-টু-ডেট হতে সমস্যা কোথায়? ইসলাম কী আপডেটেড জীবন ব্যবস্থা?

প্রথম যখন কম্পিউটার শিখি, তখন ছিল মাইক্রোসপ্ট অফিস অ্যাপ্লিকেশন 2003। পরে আপডেট হয়ে পর্যায়ক্রমে 2007, 2010 ও সর্বশেষ 2013 আসে। গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখেছিলাম ফটোশপ 7 ও ইলাস্ট্রেটর 10 দিয়ে। উইন্ডোজ শুরু করেছিলাম XP ও 7 দিয়ে। প্রসেসর পেন্টিয়াম 4 ও ডোয়েল কোর ইত্যাদি।
মানুষের আদিম অভ্যাস হলো পুরাতনকে আকড়ে ধরা, নতুনকে অবহেলা করা। নতুনের সাথে তাল মেলাতে সমাজের বড় একটা শ্রেণি অনভ্যস্ত।
অফিস অ্যাপ্লিকেশন 2007 যখন আসল অনেকেই এটি গ্রহণ করেন নি। পরে যখন বুঝতে পারলেন যে কাজ অফিস 2003 দিয়ে করতে 1 ঘন্টা লাগবে সেই একই কাজ অফিস 2007 দিয়ে করতে 20 মিনিট লাগবে। তখন আস্তে আস্তে সবাই 2007 বা আরো আপডেটেড ভার্ষন হয়ে গেল। এখন 2003 খুঁজে পাওয়াও রীতিমত মুশকিল। তবে এরপরেও অনেকে আছেন সেই 2003ই চালিয়ে যাচ্ছেন।
এভাবে গ্রাফিক্সের সপ্টওয়ারগুলোর ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। ইলাস্ট্রেটর ও ফটোশফ CC দিয়ে যা 10 মিনিটে করা যায় তা ইলাস্ট্রেটর 10 বা ফটোশফ 7 দিয়ে করতে 1 ঘন্টা বা তার বেশিও লাগতে পারে। তারপরেও অনেকেই সেই আগের ভার্ষনগুলোই ব্যবহার করছেন। কারণ তাদের মধ্যে নতুন কিছু শেখার ঝোকপ্রবণতাটুকু নাই। Old is Gold মনে করেই বসে থাকে।
এভাবে প্রতিটি জিনিসেরই আপডেট ভার্ষন আছে যা আমাদের গ্রহণ করা উচিত। না হয় আমরা অন্যদের চেয়ে পেছনে পড়ে থাকব।
আগে ছিল সাদা কালো এখন রঙিন, আগে ছিল সি. আর. টি. এখন এল. সি. ডি ও এল. ই. ডি, আগে ছিল অ্যানালগ এখন ডিজিটাল, আগে ছিল সংস্কৃত এখন সাধু বা চলিত, আগে ছিল ক্যালকুলেটর এখন কম্পিটার, আগে ছিল খাতা বা পাণ্ডলিপি এখন ব্লগ বা স্ট্যাটাস, আগে ছিল চিঠি এখন ফেইসবুক, আগে ছিল ভি. সি. আর এখন ইউটিউব এভাবে সবকিছুতেই আপডেট ভার্ষন স্থান করে নিয়েছে। তাই এখনো যারা আপডেট হতে পারেন নি তারা অতিসত্তর কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করুন।
প্রথম মানুষ ও আল্লাহর নবী হযরত আদম (আ.) ও হাওয়া (আ.) এর মাধ্যমে মানবজাতির বংশানুক্রমিক ধারার শুরু হয়। মেশিনের যেমন ম্যানুয়েল থাকে, মানবজাতিরও ম্যানুয়েল হিসেবে আল্লাহ তাঁর নবীদের মাধ্যমে দিলেন ধর্মীয়গ্রন্থসমূহ। এভাবে সময় ও যুগের সাথে তাল মিলিয়ে আল্লাহ ধর্মকেও আপডেট করতে লাগলেন। একসময় খ্রিস্টান ধর্ম আসল এরপর কালের পরিক্রমায় ইহুদি ও সর্বশেষ ইসলাম আসল। যদিও সবগুলোই আল্লাহর মনোনিত ধর্ম কিন্তু সর্বশেষ আপডেট ভার্ষন ইসলাম ছাড়া বাকী সব বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তারপরেও অনেকেই নিজেদেরকে আপডেট না করে সেই ইহুদি বা খ্রিস্টান থেকে গেছেন যেভাবে এখনো অনেকে XP ব্যবহার করছেন। ভাল করে পর্যবেক্ষণ করলে যে কোন সচেতন ব্যক্তি আপডেট ভার্ষন ইসলামকে খুঁজে পাবেন, অনেকে পেয়েছেনও।

Advertisements

2 thoughts on “আপ-টু-ডেট হতে সমস্যা কোথায়? ইসলাম কী আপডেটেড জীবন ব্যবস্থা?

  1. আপনার পোস্টটি নিজেই আপটুডেট নয়। অফিস ২০১৬ চলে এসেছে, সামনে আরও আসবে। তাই কোনও একটাকে আপটুডেট বলে বসে থাকাও কিন্তু বুদ্ধিমানের কাজ নয়। আপটুডেট একটা আপেক্ষিক কথা। তা না হলে আপনাকেই যদি বলা হয় ইসলামের পরে আর কোনও ভার্শন আসবেনা? আপনিই বলবেন না এটাই ফুল এন্ড ফাইনাল। অথচ ইসলামে যা কিছুর উল্লেখ আছে, যা কিছু নিয়েই এই ধর্মে বলা আছে কোরান ও হাদিসে, সবই ঐ ১৪০০ বছর পূর্বের এবং শুধুমাত্র আরব প্রেক্ষাপটে। সেখানে আরবের বাইরের কোনও পশুপাখির নাম নেই, ফলমূলের নাম নেই, কোনও স্থানের নাম নেই, কোনও সভ্যতার নাম নেই, কোনও বিষয়ের নাম নেই, নেই আধুনিক যন্ত্রপাতি বা চিকিৎসার নাম, কিচ্ছু নেই। বরং সেখানে সবকিছুর পেছনে দাবি করা হয়েছে অলৌকিক(অলীক) কারও ক্ষমতার। কিন্তু দিনে দিনে সবকিছুরই রহস্য ভেদ হচ্ছে, সব অসম্ভবকে সম্ভব করছে মানুষ নিজেই। সেই কৃতিত্ব নেয়া সমস্ত কাজ এখন মানুষ নিজেই পারে। তাই সেগুলো আপটুডেট করা দরকার আগে। আমিও ভেবেছিলাম আপনি বোধহয় তাই বলবেন। কিন্তু আপনিও আর দশজনের মতই নিজের লজিকেই নিজেই আবদ্ধ অর্থাৎ লজিক্যাল ফ্যালাসি পেরুতে অক্ষম।

    Like

  2. ওহ, আপনার পোস্টের কমেন্ট মডারেশন করা। কোনও সমস্যা নেই, আপনি হয়তো পাবলিশই করবেন না। অন্তত আপনি তো একবার হলেও পড়বেন, সেটাই কম কিসে। শুভকামনা রইল।

    Like

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s